Friday, September 17, 2021
Homeকৃষি ব্যবসাসুস্বাদু আচার বানিয়ে ব্যবসা

সুস্বাদু আচার বানিয়ে ব্যবসা

সুস্বাদু আচার ও চাটনি ভারতের মুখরোচক খাবারের মধ্যে একটি। প্রায় সব বয়সি নারি পুরুষরাই এটি খেতে ভালোবাসে। আমাদের দেশে বিভিন্ন ধরনের আচার ও চাটনি পাওয়া যায়, যেগুলো খুব জনপ্রিয়। কিছু আচারের জনপ্রিয়তা দেশ জুড়ে, আবার কিছু ধরনের আচারের পদ ক্ষেত্র বিশেষে প্রসিদ্ধ।

এই আচারের রেসিপি তৈরির প্রক্রিয়া খুবই সহজ। যে কোনও ব্যক্তি তার বাড়ি থেকে সহজেই এই ব্যবসাটি শুরু করতে পারেন। এই কাজটি মহিলাদের মধ্যে খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠতে পারে এবং ব্যবসাটি অনেক সহজে লাভজনক জায়গায় পৌঁছে যাবে ।

ব্যবসা শুরুর আগে আপনার বাজারে কোন আচারটির জনপ্রিয়তা বেশি, সে নিয়ে একটি ধারণা গড়ে তুলতে হবে। সেই অনুসারে আপনাকে আচারের রেসিপি তৈরির উপর মনোনিবেশ করতে হবে। এছাড়াও, আপনার স্হানীয় বাজারে এটি তৈরি করার জন্য ফলের যোগান কেমন, এ বিষয়েও ধারণা রাখতে হবে। খুব অল্প পরিমাণ পুঁজি বিনিয়োগ করেও এই ব্যবসা শুরু করা যায়।

আচার তৈরির ব্যবসা কেন লাভদায়ক!

  • প্রথমত, এই ব্যবসাটি শুরু করতে বেশি মূলধনের প্রয়োজন হয় না, তাই প্রারম্ভিক অবস্হায় বেশি বিনিয়োগের রিস্ক নিতে হয় না।
  • এই ব্যবসা আপনি বাড়ি থেকেও শুরু করতে পারবেন। এর জন্য কোনো ব্যবসায়িক কাঠামোর প্রয়োজন হয় না।
  • আচারের কোন না কোন পদ প্রায় সব বাড়িতেই খাওয়া হয়। তাই এর মার্কেট চাহিদা ভালো।
  • আপনি ব্যবসা বাড়ার সাথে সাথে এই ব্যবসাটি বড়ো করে গড়ে তুলতে পারবেন।
  • নিজের লোকাল মার্কেট ছাড়াও, আপনি চাইলে আচারের পদ বিদেশে রপ্তানি করতে পারবেন।

(১) নারকেল আচার

সমুদ্র উপকূলবর্তী এলাকায় নারকেলের প্রাচুর্য বেশি। বিশেষ করে দক্ষিণ ভারতে যে কোনো ডিশে নারকেল খুব জনপ্রিয়। কাঁচা নারকেল থেকে এটি প্রস্তুত করা হয়। অন্যান্য আচারের তুলনায় এটি প্রস্তুত করতে অনেক কম সময় লাগে। তবে অন্যান্য আচারের যেমন খারাপ হওয়ার ভয় থাকে না, নারকেলের আচারের কিছু সময় পর খারাপ হওয়ার সম্ভাবনা থেকে যায়।

অবশ্যই পড়ুন :  ‘মাশরুম চাষের’ ব্যবসা করে প্রতি মাসে রোজগার লাখ টাকা

(২) গাজর

গাজরের আচার তেল, লঙ্কা এবং বিভিন্ন মশলার সাথে মিশ্রণে তৈরি করা হয়। এটি ভারতে খুব জনপ্রিয়।

(৩) বাঁশের অঙ্কুর

বাঁশের অঙ্কুরের আচারও বাজারে খুব জনপ্রিয়। নরম বাঁশের অঙ্কুর থেকে এটি তৈরি করা হয় এবং এর উৎপাদন প্রক্রিয়াটিও সহজ।

(৪) বিভিন্ন রকমের আচার

এই রকম আচার বাজারে বেশ জনপ্রিয়। এটি তৈরি করতে বেবি কর্ন, গাজর, বিট ইত্যাদি একসাথে মিক্স করা হয়।

(৫) আমলার আচার

স্বাদ অনুসারে বাজারে বিভিন্ন ধরনের আমলার আচার পাওয়া যায়। আমলাতে প্রচুর পরিমাণে পুষ্টিগুণ রয়েছে। তাই এটি বাজারে বেশ জনপ্রিয়।

(৬) কুল

কুল খেতে স্বাদে বেশ মিষ্টি হয়, কখনো হালকা টক ও হয়। তবে কুলের আচার বেশ সুস্বাদু। সাধারণত তেল, লঙ্কা ও মশলা দিয়ে এটি তৈরি করা হয়।

(৭) কাঁঠাল

কাঁঠালের আচার বানাতে কাঁঠালের সাথে ভিনেগার ও সরিষা মিক্স করা হয়। এর উৎপাদন প্রক্রিয়াটিও বেশ সহজ।

(৮) গ্রীন চিলি

আমরা একে লঙ্কার আচার বলে থাকি। এটি সারা ভারতে জনপ্রিয় এবং বাজারে আচারের মধ্যে এর প্রাধান্য বেশ ভালোভাবে লক্ষ্য করা যায়।

(৯) রসুন

রসুনের আচার বিশেষ গন্ধের জন্য বিখ্যাত। এর স্বাদ মিষ্টি। দিনের পর দিন এর বাণিজ্যিক বাজার বৃদ্ধি পাচ্ছে। বিশেষ করে অন্ধ্রপ্রদেশে এটি খুব বিখ্যাত।

(১০) মাছ

এই আমিষ আচারটি ভারতে বেশ জনপ্রিয়। সাধারণত, ছোট ছোট যে চিংড়ি মাছ পাওয়া যায় তার থেকেই এটি তৈরি করা হয়। ভারতের বাজারে এর খুব চাহিদা রয়েছে। এছাড়া এটি রপ্তানি ও করা হয়।

Pickle Recipe

Source : Internet

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular